ফ্রিল্যান্সিং ক্যারিয়ার এ ভিন্নধর্মী প্লাটফর্ম ৯৯ ডিজাইন, প্রয়োজনীয় তথ্য ও পরামর্শ

ফ্রিল্যান্সারদের জন্য যত ধরণের মার্কেটপ্লেস রয়েছে, তার মধ্যে সম্পূর্ণ ব্যতিক্রমী মার্কেটপ্লেসে এর  একটি হচ্ছে  www.99designs.com। এই সাইটটি শুধুমাত্র ডিজাইনারদের জন্য বিশেষভাবে তৈরি করা হয়েছে। এই সাইটে সাধারণত যে সকল কাজ পাওয়া যায় তা হল – ওয়েবসাইট ডিজাইন, লোগো ডিজাইন, বাটন ও আইকন ডিজাইন, টি-শার্ট ডিজাইন, ব্যানার ডিজাইন ইত্যাদি। এখানে প্রত্যেকটি ডিজাইন সম্পন্ন করার জন্য ক্রেতা বা ক্লায়েন্ট একটি প্রতিযোগিতার আয়োজন করেন যা অন্যান্য মার্কেটপ্লেস থেকে সম্পূর্ণ  ভিন্ন। ক্লায়েন্টে প্রতিযোগিতার প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান করেন। নির্দেশনা অনুযায়ী ডিজাইনাররা ডিজাইন তৈরি করে। এই প্রতিযোগিতায় যে কেউ অংশগ্রহণ করতে পারে । ক্লায়েন্ট প্রতিযোগিতার জন্য একটি নির্ধারিত বাজেট নির্ধারণ করেন। সবশেষে ক্লায়েন্ট একজন ডিজাইনারকে বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করে এবং পুরষ্কার হিসেবে ডিজাইনারকে পূর্ব নির্ধারিত অর্থ প্রদান করেন।

৯৯ ডিজাইনে প্রত্যেকটি প্রতিযোগিতাকে কনটেস্ট বলা হয়। প্রতিযোগিতার আয়োজনকারী কনটেস্ট হোল্ডার বা আয়োজক এবং অংশগ্রহণকারী ফ্রিল্যান্সারদের কে বলা হয় ডিজাইনার। ৯৯ ডিজাইনে নিবন্ধনকৃত ডিজাইনারের সংখ্যা ১০ লক্ষাধিক। অন্যান্য মার্কেটপ্লেসের তোলনায় এখানে কাজের মূল্য তুলনামূকভাবে বেশি প্রদান করা হয়।

৯৯ ডিজাইনের কার্যপ্রক্রিয়া99 Design

১) ডিজাইন ব্রিফ:
প্রথম ধাপে প্রতিযোগিতার আয়োজক তার চাহিদা অনুযায়ী ডিজাইনের একটি নির্দেশনা তৈরি করে যাকে বলা হয় ডিজাইন ব্রিফ (Design Brief)। ডিজাইনাররা এই ব্রিফের উপর ভিত্তি করে তাদের ডিজাইন তৈরি করে থাকে। প্রতিযোগিতাটির আয়োজন করার জন্য এসময় ক্লায়েন্টকে ৩৯ ডলার অর্থ সাইটকে প্রদান করতে হয়। তবে এই সাইট থেকে ফ্রিল্যান্সারদের কাছ থেকে কোন ফি নেয়া হয় না।

২) বাজেট নির্ধারণ:
দ্বিতীয় ধাপে আয়োজক পুরষ্কারের পরিমাণ নির্ধারণ করে। পুরষ্কারের মূল্য সর্বনিম্ন ১০০ ডলার থেকে শুরু করে এক থেকে দুই হাজার ডলার পর্যন্ত হতে পারে। এটি সম্পূর্ণ আয়োজকের বাজেটের উপর নির্ভর করে।

৩) কনটেষ্ট এর প্রথম পর্ব:
প্রত্যেকটি প্রতিযোগিতা সর্বনিম্ন ১ দিন থেকে সর্বোচ্চ ৭ দিন পর্যন্ত চলতে পারে। এই সময়ের মধ্যে ডিজাইনাররা প্রজেক্টের ব্রিফের উপর নির্ভর করে ডিজাইন তৈরি করে এবং তৈরিকৃত ডিজাইনের একটি ছবি ওয়েবসাইটে জমা করে। এই ছবিগুলো যে কেউ দেখতে পারে। এতে একজনের ডিজাইন দেখে তার থেকে ভাল আরেকটি ডিজাইন তৈরি করার মানসিকতা ডিজাইনারদের মধ্য কাজ করে। যা পরিশেষে আয়োজকের জন্য সুফল বয়ে আনে। প্রতিযোগিতা চলাকালীন সময়ে আয়োজক জমা দেয়া প্রত্যেকটি ডিজাইনকে একটি রেটিং এবং একটি মন্তব্য প্রদান করে। কোন ডিজাইন ভাল না হলে তা ঠিক করার পরামর্শও আয়োজক দিয়ে থাকে। প্রত্যেক ডিজাইনার একের অধিক ডিজাইন জমা দিতে পারে।

৪) চূড়ান্ত বিজয়ী:

রেটিং এবং মন্তব্য প্রদানের মাধ্যমে আয়োজক ডিজাইনারদের সাথে যোগাযোগ করে এবং তার কাঙ্খিত ডিজাইন তৈরি করিয়ে নেয়। প্রতিযোগিতা শেষ হবার পর আয়োজক একজনকে বিজয়ী হিসেবে নির্ধারণ করে এবং তার পুরষ্কার প্রদান করে। সবশেষে ডিজাইনার তার তৈরিকৃত মূল ডিজাইনের ফাইল আয়োজককে দিয়ে দেয়।

প্রতিযোগিতার প্রকারভেদ:

99designs.com সাইটে পুরষ্কার প্রদানের বিভিন্ন পদ্ধতির উপর ভিত্তি করে নিম্নলিখিত ধরনের প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় –
১) প্রিপেইড কনটেষ্ট
এটি হচ্ছে সাইটটির স্ট্যান্ডার্ড একটি প্রতিযোগিতা যাতে আয়োজক পুরষ্কারের মূল্য প্রতিযোগিতা শুরুর পূর্বেই 99designs.com সাইটে জমা রাখে। প্রতিযোগিতা শেষে সাইটটি বিজয়ী ডিজাইনারকে অর্থ প্রদান করে থাকে। এ ধরনের প্রতিযোগিতায় আয়োজক কোন ডিজাইন পছন্দ না হলে প্রতিযোগিতা বাতিল করে অর্থ ফেরত নিতে যেতে পারে। প্রিপেইড প্রতিযোগিতার সময় হচ্ছে ৭ দিন। প্রতিযোগিতা শেষে আরো ৭ দিনের মধ্যে আয়োজক একজন ডিজাইনারকে বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করতে পারে অথবা কোন ডিজাইন পছন্দ না হলে প্রতিযোগিতা বাতিল করতে পারে।

২) গ্যারান্টেড কনটেষ্ট
গ্যারান্টেড প্রতিযোগিতা ডিজাইনারদের জন্য সবচেয়ে নিরাপদ একটি পদ্ধতি যা বেশিরভাগ ডিজাইনারকে আকৃষ্ট করে। ফলে আয়োজক সর্বোৎকৃষ্টমানের ডিজাইন পেতে পারে। পুরষ্কার প্রদানের পদ্ধতি প্রিপেইড প্রতিযোগিতার মতই, তবে এই পদ্ধতিতে প্রতিযোগিতা শেষে আয়োজক নিশ্চিতভাবে একজন ডিজাইনারকে বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করে এবং তার পুরষ্কারের মূল্য প্রদান করে। গ্যারান্টেড প্রতিযোগিতায় আয়োজক প্রতিযোগিতা বাতিল বা সাইটে জমা দেয়া অর্থ ফেরত নিতে পারে না।

৩) পে-অন-উইন কনটেষ্ট
এটি সাইটের প্রথম দিককার প্রতিযোগিতার পদ্ধতি ছিল, যা এখন আর নেই। এই পদ্ধতিতে প্রতিযোগিতার আয়োজক সাইটে পুরষ্কারের অর্থ জমা না রেখে সরাসরি বিজয়ী ডিজাইনারকে প্রদান করত। অন্যদিকে বর্তমানে এই কাজটি 99designs.com সাইটটি বিভিন্ন ধরনের পেমেন্ট পদ্ধতির মাধ্যমে করে থাকে।

৪) ফাস্ট ট্র্যাক কনটেষ্ট
এই ধরনের প্রতিযোগিতা একটি সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্য আয়োজন করা হয়, সাধারনত ১ থেকে ৩ দিন। সাধারণত এই ধরনের প্রতিযোগিতার পুরষ্কারের মূল্য অন্যান্য ধরনের প্রতিযোগিতা থেকে বেশি হয়ে থাকে।

৫) প্রাইভেট কনটেষ্ট
প্রাইভেট প্রতিযোগিতাগুলো প্রিপেইড প্রতিযোগিতার মতই, তবে শুধুমাত্র ওয়েবসাইটে লগইন করার পর দেখা যায়। এই ধরনের প্রতিযোগিতাকে সাইটের সার্চে অন্তর্ভুক্ত করা হয় না এবং এগুলো সার্চ ইঞ্জিন থেকে লুকানো থাকে।

প্রাইজের টাকা উত্তোলন পদ্ধতি

প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ী ডিজাইনার তার তৈরিকৃত ডিজাইনারের মূল ফাইল সাইটে আপলোড করে দেয়। আয়োজক কাজটি গ্রহণ করার সাথে সাথে পুরষ্কারের সম্পূর্ণ অর্থ ডিজাইনারের একাউন্টে জমা হয়ে যায়। মোট আয় ৫০ ডলারের অধিক হলেই ওয়েবসাইটটি থেকে ৪টি পদ্ধতির যে কোন একটি ব্যবহার করে অর্থ উত্তোলন করা যায়। পদ্ধতিগুলো হচ্ছে – পেপাল, অল্টারপে, মানিবুকারস এবং ওয়েস্টার্ন ইউনিয়ন। বাংলাদেশী ফ্রিল্যান্সারা শেষের দুটি পদ্ধতির মাধ্যমে সহজেই অর্থ উত্তোলন করতে পারবে।

সৃজনশীল এবং দক্ষ ডিজাইনারদের জন্য 99designs.com সাইটটি ইন্টারনেট থেকে আয় করার একটি চমৎকার মার্কেটপ্লেস। এই সাইটে যেহেতু একজনের ডিজাইন অন্য আরেকজন দেখতে পারে ফলে নতুন ডিজাইনারা এই পদ্ধতিতে ডিজাইনের নতুন নতুন আইডিয়া শিখতে পারবে। একটি ডিজাইন জমা দেয়ার সাথে সাথেই যেহেতু ক্লায়েন্টের মতামত ও রেটিং পাওয়া যায়, তাতে ডিজাইনার জানতে পারে তার ডিজাইন কতটকু গ্রহণযোগ্য এবং সেই অনুযায়ী পদক্ষেপ নিতে পারে। এই সাইটের অন্য আরেকটি ভাল দিক হচ্ছে এখানে অন্যান্য সাইট থেকে তুলনামূলকভাবে বেশি মূল্যের কাজ পাওয়া যায়। উদাহরণসরূপ এই সাইটে একটি ছোট্ট লোগো ডিজাইন করার জন্য প্রায়ই ৫০০ ডলারের গ্যারান্টেড পুরষ্কার প্রদান করা হয়, যা সত্যি অসাধরণ। 

কনটেষ্ট বিজয়ী হওয়ার জন্য কিছু প্রয়োজনীয় কিছু কৌশল:

কনটেষ্টে প্রাথমিক অবস্থায় অংশগ্রহন করুন

কন্টেস্ট শুরু হয়েছে মাত্র, খুব বেশি ডিজাইন জমা হয় নাই এরকম কন্টেস্ট এ অংশগ্রহন করুন।  কন্টেস্ট হোল্ডাররা প্রথম দিকে সাবমিট করা ডিজাইন এর দিকে বেশি গুরুত্ব দেয়। অন্যরা হয়ত আপনাকে ফলো করতে পারে, তাই যতটা সম্ভব ইউনিক রাখুন ডিজাইন। ডিজাইনে সতন্ত্র কিছু ব্যাপার ফুটিয়ে তুলুন যা অন্যরা সহজে করতে না পারে।

ক্লায়েন্ট এর প্রোফাইল ডিটেইলস্‌ জেনে নিন

অনেক ক্লায়েন্ট আছেন যাদের পেমেন্ট ভেরিফাইড না। আবার অনেকে কনটেষ্ট প্রাইজ না দিয়েই কনটেষ্ট বন্ধ করে দেয়। ক্লায়েন্ট এর আগে যে কনটেষ্ট দিয়ে ছিল তার ধরন কেমন ছিল, এই বিষয়গুলো অবশ্য ভেবে দেখতে হবে। আগের কনটেষ্ট থেকে ক্লায়েন্ট এর পছন্দ সম্পর্কে ধারণা পেতে পারেন। তাই ক্লায়েন্ট এর প্রোফাইল ভালভাবে দেখে নিন।

ক্রিয়েটিভ কিছু করুন

ক্লায়েন্ট এর বর্ণনা হুবুহু করতে হবে ব্যাপারটা এমন নয়। বরং এমন কিছু করুন যেন ক্লায়েন্ট যা বর্ণনা দিয়েছেন তা ঠিক থাকে এবং ভিন্নধর্মী ও হয়। কারণ সবাই ক্লায়েন্টকে হুবু হয়ত ফলো করবে। যেমন ক্লায়েণ্ট আপনাকে হরিণ নিয়ে লগো ডিজাইন করতে বলেছে। আপনি লগোতে হরিনের শিং নিয়ে কাজ করতে পারেন। অর্থাৎ এমন কিছু করুন যেন সবার চাইতে আলাদা হয় কিন্তু অপ্রাসঙ্গিক না হয়।99designs

মোকআপ ব্যাহার করুন।

ডিজাইন করার পর আপলোড করার সময় সব সময়  মোকআপ এ দেয়ার চেস্টা করবেন কারন মোকআপ কাজে যোগ করে ভিন্নমাত্রা। এর সাথে অরিজিনাল ফাইল এর প্রিভিও টা ও এড করুন।maxresdefault

কাজের ফিডব্যাক নিন

ক্লায়েন্ট এর কাছে সবসময় ফিডব্যাক জেনে নিন। তাতে আপনি বুঝতে পারবেন আপনার ডিজাইন এর কোন পরিবর্তন লাগবে কিনা। যে যায়গায় পরিবর্তন ছিল সেগুলো ভালোভাবে গুরুত্ব দিন। পরবর্তী কনটেষ্টে হয়ত পরিবর্তনগুলো আপনার কাজে যোগ করবে ভিন্ন মাত্রা। ফিডব্যাককে কাজে লাগাতে পারেন কাজের প্রফেশনালিজম বাড়াতে।

যত দ্রুত সম্ভব রিভিশন করুন

ক্লায়েন্ট ডিজাইন পছন্দ করার পর যদি কোন পরিবর্তন করতে হবে মনে করেন, তাহলে রিভিশনের জন্য আপনাকে বলবে। আরেকটি বিষয় ক্লায়েন্ট হয়ত অন্য ডিজাইনারদেরকে ও বলতে পারেন রিভিশনের জন্য। এ ক্ষেত্রে প্রয়োজন যত দ্রুত রিভিশন শেষ করে ফাইল আপলোড করা। হয়ত আপনার ডিজাইনটি রিভিশনের প্রথমে ক্লায়েন্ট এর চোখে পড়লে সেটিই চূড়ান্ত বলে গন্য হতে পারে।

কনটেষ্ট এ ব্যার্থ হলে

আপনি যদি কন্টেস্ট হেরে যান তাহলে আপনার ডিজাইন প্রতিযোগিতা থেকে তুলে নিন এবং সেই ডিজাইন আপনি অন্য মার্কেটপ্লেস এ বিক্রয় করতে পারেন। এর পর অধ্যবসায়ের সাথে কনটেষ্ট এ অংশগ্রহন করুন। মনে রাখবেন যে কনটেষ্টে আপনি হেরে গেলেন, সেখান থেকে আপনার আপনার পরবর্তী কনটেষ্টে অনেক সাপোর্ট  যোগাবে।  মনোবল আর দৃঢ়তার প্রচেষ্টা চালিয়ে যান, হয়ত আপনিই হবেন বিজয়ী। এ প্রত্যাশায় আমি সুলতান মাহমুদ এখানেই বিদায় নিচ্ছি, থাকুন প্রযুক্তির সাথে, প্রযুক্তি টিমের সাথে।

আরো দেখুনঃ

প্রফেশনাল লোগো এবং বিজনেস কার্ড ডিজাইন বাংলা টিউটোরিয়াল ডিভিডি!

ফেইসবুকের সাহায্যে মন্তব্য দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*

2 Comments

  • MD. SAAD ULLAH ZAFAR 4 months ago

    ভাই আমার একাউন্ট আছে ৯৯ডিজাইনে৷ কিন্তু কয়েকটি কনটেস্টে এটেন্ড করার পর হঠাৎ তারা আমার একাউন্ট সাসপেন্ড করে কারণ হল প্রাপ্ত ইমেইল মোতাবেক আমার ডিজাইনগুলো ওদের মান অনুযায়ী হচ্ছেনা৷ যে কারণে আমার একাউন্ট হোল্ড হয় এবং ৩ মাস সময় দেয়া হয় নতুন কোন ডিজাইন সাবমিট করার জন্য একই সাথে তাদের ব্লগ অর্থাৎ ডিজাইন ব্লগ পড়ার পরামর্শ দেয়া হয়৷ সেই থেকে মনের দুঃখে আর ডিজাইন সাবমিট করা হয়নি৷ উপযুক্ত পরামর্শ দেবেন আশা করছি

  • রাশেদ আহমেদ সোহেল 3 months ago

    ধন্যবাদ … এতো সুন্দর লেখার জন্য !